এইভাবে বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন মায়াপুরের ঐতিহ্যবাহী ‘পনির কালিয়া’, শিখে নিন রেসিপি

বাড়িতে প্রায়শই নিরামিষ পদ রান্না হয়ে থাকে। আর এই নিরামিষ এর মধ্যে পনির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি পদ। এই পনির স্বাস্থ্যের পক্ষেও খুবই উপকারী। মায়াপুরে যে ভোগ দেয়া হয় তার মধ্যে পনিরের কালিয়া অন্যতম। আমরা অনেকেই বাড়িতে পনির বিভিন্ন রকম ভাবে রান্না করে থাকি। এবার আসুন দেখে নেওয়া যাক একটু ভিন্ন স্বাদের মায়াপুরের পনিরের কালিয়া কিভাবে রান্না করতে হয়। মায়াপুর স্টাইলে পনির কালিয়া রান্না করার জন্য যে যে উপকরণ গুলি দরকার সেগুলি হল –

উপকরণ – ১. তেল ২. পাঁচফোড়ন ৩. জিরে ৪. শুকনো লঙ্কা ৫. হিং ৬. তেজপাতা ৭. হলুদ গুঁড়ো ৮. লঙ্কার গুঁড়ো ৯. কাঁচালঙ্কা ১০. কাশ্মীরি গুড়া লঙ্কা ১১. হলুদ ১২. নুন ১৩. চিনি ১৪. টমেটো ১৫. পনির ১৬. ক্যাপসিকাম ১৭. পোস্ত ১৮. চারমগজ ১৯. আদা

পনিরের কালিয়া রান্না করার জন্য প্রথমে পনিরগুলো ছোট ছোট টুকরো করে কেটে ভেজে নুন এবং হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ভেজে নিতে হবে। এবার বাকি তেলের মধ্যেই ১/৪ চা চামচ পাঁচফোড়ন, ১/৪ চা চামচ জিরে, ১/৪ চা চামচ হিং, ১টা শুকনো লঙ্কা, ১টা তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে নিয়ে তার মধ্যে ক্যাপসিকাম এবং টমেটো কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে হবে। এবার এর মধ্যে স্বাদমতো নুন, ১/৪ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো, সামান্য লঙ্কার গুঁড়ো এবং স্বাদমতো চিনি দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে, কিছু সময় ধরে।

এবার একটা মসলার পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে তার জন্য একটা মিক্সার গ্রাইন্ডার মধ্যে এক চামচ গোটা জিরে দুই চামচ পোস্ত 2 চামচ চার মগজ একসাথে বেটি নিয়ে তার মধ্যে দুটো কাঁচালঙ্কা, সামান্য আদা এবং সামান্য জল দিয়ে আবারো ভালো করে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এবার কড়াইতে ওই পেস্টটি দিয়ে দিতে হবে। তারপর ভালোভাবে সমস্ত মসলা একসাথে কষিয়ে নিয়ে জল দিয়ে দিতে হবে। তারপর ঝোলটা সামান্য ফুটে গেলে তার মধ্যে পনিরের টুকরোগুলো দিয়ে আবারো পাঁচ মিনিট ঢাকা দিয়ে রাখার পরেই তৈরি হয়ে যাবে পনিরের কালিয়া।