লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে বড় চমক মমতার! ঠিক কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী

WhatsApp Channel Join Now
Telegram Channel Subscribe

১০০ দিনের প্রকল্পে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গাফিলতি ও আর্থিক বঞ্চনার অভিযোগ করেছে রাজ্য সরকার। এদিন মন্ত্রীসভার বৈঠকে এই নিয়ে আলোচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এবার থেকে ১০০ দিনের প্রকল্পের কর্মীদের যে কোন সরকারি নির্মাণ প্রকল্পে কাজে নেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে মেলা, খেলার ও বিভিন্ন তুলনামূলক অপ্রয়োজনীয় খাতে খরচের রাশ টেনে, সেই টাকা বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে ১০০ দিনের কাজের কর্মীদের দেওয়ার চিন্তা ভাবনা চলছে।

সামনেই পঞ্চায়েত ভোট। তার আগেই বিভিন্ন ভাতা নিয়ে আলোচনা চলছে রাজ্য মন্ত্রিসভায়। বুধবার এই নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আগে যারা “লক্ষ্মীর ভান্ডার” পেতেন তাদের “বিধবা ভাতা” থেকে বঞ্চিত হতে হত। কিন্তু এবার থেকে “লক্ষ্মীর ভান্ডার” -এর পাশাপাশি তারা “বিধবা ভাতা” -র জন্যেও আবেদন করতে পারবেন। ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত যে কোন মহিলা “লক্ষীর ভান্ডার” -এর ভাতা পাবেন।

লক্ষীর ভান্ডারে জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলারা ৫০০ টাকা করে মাসিক ভাতা পান। আর তপশিলি জাতি, উপজাতি ও অনগ্রসর শ্রেণীর মহিলারা মাসে এক হাজার টাকা করে মাসিক ভাতা পান। সরাসরি এই টাকা তাদের ব্যাংকের একাউন্টে চলে যায়।

এর পাশাপাশি কৃষকদের নিয়েও এ দিনের সভায় আলোচনা হয়। যে সমস্ত কৃষকদের চাষের জমির উপর দিয়ে হাই টেনশন তার যায় তাদের বাধ্যতামূলক ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। তড়িৎ পরিবাহী খুঁটির জন্য জমির মূল্যের ১৫ শতাংশ এবং ফসলের মূল্যের অতিরিক্ত ১০ শতাংশ ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে জমির মালিকদের। আলু চাষিদের অবস্থা নিয়েও এই দিনের সভায় আলোচনা হয়। বর্তমানে আলুর দাম প্রতি কেজি ২২ টাকা। ফলে যারা এতদিন আলু মজুদ করে রেখেছিলেন তাদের লোকসানের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। তাদের নিয়ে ভেবে দেখবেন বলে জানিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি।

Leave a Comment