‘আমরা বাঙালি হয়ে হিন্দি বলি, তোমরা বাংলা শিখবে না কেন?’, আদিত্যকে ধমক শর্মিলার, ভাইরাল ভিডিও

এখন সবকিছুই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পাওয়া যায়। যেমন- সাজ সরঞ্জামের জিনিস, পড়াশোনার সামগ্রী, নিত্যনৈমিত্তিক ব্যবহারের সব জিনিস, খাবার দাবার ইত্যাদি। সোশ্যাল মিডিয়া বলতে মূলত ইউটিউব (YouTube), টুইটার (Twitter), ইন্সটাগ্রাম (Instagram), ফেসবুক (Facebook) কেই বোঝানো হয়। নিত্যদিন এত পরিমাণ মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অলস সময় কাটান যে কোনো না কোনো ভিডিও, ছবি, খবর প্রতিদিন ভাইরাল হতেই থাকে।

ভালো করে খেয়াল করলে দেখবেন বাংলা সিনেমা, সিরিয়াল, সিঙ্গিং রিয়েলিটি শো ও ডান্স রিয়েলিটি শো প্রভৃতিতে হামেশাই হিন্দি গানের ব্যবহার দেখা যায়। হিন্দি গানের এহেন ব্যবহার বন্ধ করার জন্য বাংলা পক্ষ গর্জে উঠেছিল। তবে এবার উল্টো ঘটনা ঘটেছে। হিন্দি সিঙ্গিং রিয়েলিটি শো এর মঞ্চে ব্যবহার হয়েছে বাংলা ভাষার।

আমরা মোটামুটি সকলেই জানি যে শর্মিলা ঠাকুর (Sharmila Tagore) একজন বাঙালি। একটি সিঙ্গিং রিয়্যালিটি শো-তে সম্প্রতি গিয়েছিলেন তিনি। সেখানকার সঞ্চালক আদিত্য নারায়ণ (Aditya Narayan) কে রীতিমতো বাংলা শেখাতে শুরু করে দিয়েছিলেন তিনি। এক পর্যায়ে তিনি বলেন, “আমরা বাঙালি হয়ে হিন্দিতে কথা বলি। তোমরা বাংলা শিখবে না কেন?” তার এহেন মন্তব্য কে সাধুবাদ জানাচ্ছে বাঙালির একাংশ।

এই ঘটনাটি অসলে ঘটেছিল “ইন্ডিয়ান আইডল” -এর মঞ্চে। এই শোয়ের একজন প্রতিযোগী সোনাক্ষী (Sonakshi) কলকাতার মেয়ে। সে শর্মিলা ঠাকুরের (Sharmila Tagore) সাথে বাংলায় কথা বলার জন্য রিকুয়েস্ট করে। তার উত্তরে শর্মিলা ঠাকুর রাজি হন। সোনাক্ষী (Sonakshi) শর্মিলা ঠাকুরের উদ্দেশ্যে বলে “তোমাকে আমার খুব ভালো লাগে। এখানে আসার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। ম্যাম, আমি তোমাকে কাকিমা বলে ডাকতে পারি?” এর উত্তরে শর্মিলা ঠাকুর বলেন, “একদম। আমাকে কাকিমা, মাসিমা, দিদি, দিদিমা যা ইচ্ছা বলে ডাকতে পারো।” সেই সময় আদিত্য নারায়ন মজা করার উদ্দেশ্যে ভুল বাংলায় কিছু বলার চেষ্টা করেন। এর ফলস্বরূপ শর্মিলা ঠাকুর তাকে বাংলা শেখানো শুরু করেন।

Leave a Comment