এইভাবে বাড়িতে লাগান জবা গাছ, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

“মায়ের পায়ের জবা হয়ে উঠনা ফুটে মন”- জবা ফুল (China rose) সকলের খুব প্রিয়। আবার এই ফুলের ঠাঁই হয় ঈশ্বরের চরণ পদ্মে। এই ফুল দিয়েই মা কালীর পুজো করা হয়। তাই বিশেষ করে শাক্ত মতে বিশ্বাসী মানুষদের কাছে এই ফুল অত্যন্ত প্রিয় ফুল। এই জবা ফুলের আরোও অনেক ভেসজ গুন রয়েছে।

Hibiscus1, , এইভাবে বাড়িতে লাগান জবা গাছ, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

এই ফুল চুল পরা (Hair fall) বন্ধ করে। উচ্চ রক্তচাপ (High blood pressure) যুক্ত ব্যক্তিরা এই ফুল বেঁটে মাথায় দিলেও উপকার হয়। লাল ও হলুদ রঙের জবা ফুল সাধারণত দেখা যায়, তবে এই দুটি রঙ বাদেও আরোও নানা রঙের জবা ফুল দেখতে পাওয়া যায় এখন।

Hibiscus2, , এইভাবে বাড়িতে লাগান জবা গাছ, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

তবে শুধুমাত্র এইসব কারণের জন্যই নয়, জবা গাছ লাগাতে পারেন আরেকটি বিশেষ কারণে। জবা গাছ লাগালে জীবন সুন্দর হয়ে উঠবে। তবে এই গাছ অবশ্যই বাস্তুবিদ্যা মেনে লাগানো উচিত। কারণ এই গাছ যেমন জীবনকে সুন্দর করে তোলে, তেমনই বাস্তুবিদ্যা না মেনে লাগালে এই গাছই আবার খারাপ ফল দেবে। তাই বাস্তু মেনেই লাগান এই গাছ। রইলো কিছু টিপস (Tips)–

Hibiscus3, , এইভাবে বাড়িতে লাগান জবা গাছ, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

বাড়ির উঠোনে কিংবা ছাদে একটি জবা ফুলের গাছ লাগাতে পারেন। এতে আপনার জীবনের বাঁধা কেটে যাবে। লাল জবা হনুমানজির খুব প্রিয়। তাই প্রতি মঙ্গল এবং শনিবার যদি হনুমানজির চরণে লাল জবা দিতে পারেন, তাহলে আপনার জীবন সুন্দর হয়ে উঠবে। আবার কেউ যদি অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে ডুবে থাকেন, তাহলে একটি করে লাল জবা দিয়ে আপনি মা কালীর চরণে দিতে পারেন।

Hibiscus, , এইভাবে বাড়িতে লাগান জবা গাছ, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

তবে এই গাছ লাগানোর আগে কয়েকটি নিয়ম মানতে হবে আপনাকে। যেমন– বাস্তু মেনে সঠিক স্থানে লাগাতে হবে জবা গাছ। একইসাথে দেখতে হবে, গাছটি যেন অপরিষ্কার জায়গায় না লাগানো হয়। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে শুধু জবা গাছ নয়, তুলসী গাছ, অ্যালোভেরা গাছ, মানিপ্ল্যান্ট গাছগুলোও বাস্তুবিদ্যা মতে খুব উপকারী গাছ।

Leave a Comment